চিফ একাউন্টস এন্ড ফিন্যন্স অফিসার এর কার্যালয়

যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়

চিফ একাউন্টস এন্ড ফিন্যন্স অফিসার এর কার্যালয়

যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়

অফিসের বর্ণনা

অফিস পরিচিতিঃ সিএও/যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় ১লা জুলাই ২০০২ তারিখে চালু হয় । তখন প্রধান হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োজিত ছিলেন জনাব মোঃ খায়রুল ইসলাম এবং ১৪-০১-২০১৯ ইং হতে প্রধান হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োজিত আছেন শামীম আহমদ উজ্জ্বল ।

অফিসের বর্ণনাঃ– ১৯৮২ সালে তদানিন্তন একাউন্টেন্ট জেনারেল (সিভিল) কার্যালয়কে বিল পাশের দায়িত্ব থেকে অব্যহতি দিয়ে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রণাধীন প্রধান হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তার কার্যালয় গঠন করা হয় । উক্ত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের প্রথম পর্যায়ে ১৯৮৩ সালে সর্বপ্রথম সিএও কৃষি ও সিএও শিক্ষা অফিস সৃষ্টি হয় । অতঃপর ১৯৮৫ সালে সিএও/সড়ক ও জনপথ এবং সিএও/আই আর ডি গঠিত হয়।দেশের উন্নয়ন কর্মকান্ডকে গতিশীল ও ত্বরান্বিত করার লক্ষ্যে মন্ত্রণালয় ও মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ দপ্তর/অধিদপ্তর/পরিদপ্তর/বিভাগসমূহকে অধিকতর আর্থিক ক্ষমতা প্রদানের প্রতি গুরুত্ব আরোপ করে অর্থ মন্ত্রণালয়ের আদেশ নং-এম এফ/এফ ডি এডমিন-৮/ডিএ (পোল-১)/৮৪ (পার্ট-১)/৩৩৯ তারিখঃ ২৯-১২-১৯৮৫ ইং অনুযায়ী মন্ত্রণালয় ভিত্তিক হিসাব বিভাগীয় করণের চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয় । এ ভাবে পরবর্তীতে ধারাবাহিকভাবে মন্ত্রণালয় ভিত্তিক সিএও/যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়সহ মোট ৪৯টি সিএও কার্যালয় সৃষ্টি করা হয় ।

সিএও যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় সৃষ্টি তারিখ ০১-০৭-২০০২ । সিএও যুব ও ক্রীড়া গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ সকল বিভাগ, দপ্তর, অধিদপ্তর, পরিদপ্তর এবং প্রকল্পসমূহের আয়-ব্যয়ের হিসাব প্রণয়ন, সংরক্ষণ, ও বিল পাশের কাজ করে থাকে । এছাড়াও মন্ত্রণালয় ও এর অধীনস্থ অফিসসমূহে কর্মরত কর্মকর্তা/কর্মচারীগণের যাবতীয় বেতন বিল জিপিএফ বিল ও হিসাব, সকল ধরনের লোনস এন্ড এডভান্স বিল পরিশোধ করে থাকে । সচিব কর্তৃক উক্ত হিসাব গৃহীত হওয়ার পর তা ভেটিং এর জন্য সিভিল অডিট অধিদপ্তরে প্রেরণ করা হয় । সিভিল অডিটের ভেটিং এর পর তা সিজিএ কার্যালয়ে প্রেরণ করা হয় ।

বর্ণিত কার্যক্রম সুষ্টভাবে সম্পন্নের জন্য ১৯৮৫ সালে অফিসটি সৃষ্টির সময় সিএও যুব ও ক্রীড়া কার্যালয়ে ০১ জন প্রধান হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তার, ২ জন অডিট এন্ড একাউন্টস অফিসারের,  ২ জন সুপারের, ১৭ জন অডিটরের, ২ জন জুঃ অডিটরের, ৩ জন অফিস সহায়ক সহ মোট ২৭ জন কর্মকর্তা/কর্মচারীর পদ সৃষ্টি করা হয় ।

সিএও যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় কার্যালয়টি ঢাকার সেগুন বাগিচাস্থ হিসাব ভবনের (প্রাক্তন এজি অফিস) ৫ম তলার পূর্ব্ পার্শ্বে অবস্থিত । এ কার্যালয়ে মোট শাখার সংখ্যা ২টি । গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মোট ৫০টি হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তার কার্যালয়ের মধ্যে সিএও যুব ও ক্রীড়া একটি উল্লেখ্যযোগ্য অফিস ।

  • অফিস পরিচিতিঃ সিএও/যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় ১লা জুলাই ২০০২ তারিখে চালু হয় । তখন প্রধান হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োজিত ছিলেন জনাব মোঃ খায়রুল ইসলাম এবং ১৪-০১-২০১৯ ইং হতে প্রধান হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োজিত আছেন শামীম আহমদ উজ্জ্বল ।

অফিসের বর্ণনাঃ– ১৯৮২ সালে তদানিন্তন একাউন্টেন্ট জেনারেল (সিভিল) কার্যালয়কে বিল পাশের দায়িত্ব থেকে অব্যহতি দিয়ে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রণাধীন প্রধান হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তার কার্যালয় গঠন করা হয় । উক্ত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের প্রথম পর্যায়ে ১৯৮৩ সালে সর্বপ্রথম সিএও কৃষি ও সিএও শিক্ষা অফিস সৃষ্টি হয় । অতঃপর ১৯৮৫ সালে সিএও/সড়ক ও জনপথ এবং সিএও/আই আর ডি গঠিত হয়।দেশের উন্নয়ন কর্মকান্ডকে গতিশীল ও ত্বরান্বিত করার লক্ষ্যে মন্ত্রণালয় ও মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ দপ্তর/অধিদপ্তর/পরিদপ্তর/বিভাগসমূহকে অধিকতর আর্থিক ক্ষমতা প্রদানের প্রতি গুরুত্ব আরোপ করে অর্থ মন্ত্রণালয়ের আদেশ নং-এম এফ/এফ ডি এডমিন-৮/ডিএ (পোল-১)/৮৪ (পার্ট-১)/৩৩৯ তারিখঃ ২৯-১২-১৯৮৫ ইং অনুযায়ী মন্ত্রণালয় ভিত্তিক হিসাব বিভাগীয় করণের চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয় । এ ভাবে পরবর্তীতে ধারাবাহিকভাবে মন্ত্রণালয় ভিত্তিক সিএও/যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়সহ মোট ৪৯টি সিএও কার্যালয় সৃষ্টি করা হয় ।

সিএও যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় সৃষ্টি তারিখ ০১-০৭-২০০২ । সিএও যুব ও ক্রীড়া গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ সকল বিভাগ, দপ্তর, অধিদপ্তর, পরিদপ্তর এবং প্রকল্পসমূহের আয়-ব্যয়ের হিসাব প্রণয়ন, সংরক্ষণ, ও বিল পাশের কাজ করে থাকে । এছাড়াও মন্ত্রণালয় ও এর অধীনস্থ অফিসসমূহে কর্মরত কর্মকর্তা/কর্মচারীগণের যাবতীয় বেতন বিল জিপিএফ বিল ও হিসাব, সকল ধরনের লোনস এন্ড এডভান্স বিল পরিশোধ করে থাকে । সচিব কর্তৃক উক্ত হিসাব গৃহীত হওয়ার পর তা ভেটিং এর জন্য সিভিল অডিট অধিদপ্তরে প্রেরণ করা হয় । সিভিল অডিটের ভেটিং এর পর তা সিজিএ কার্যালয়ে প্রেরণ করা হয় ।

বর্ণিত কার্যক্রম সুষ্টভাবে সম্পন্নের জন্য ১৯৮৫ সালে অফিসটি সৃষ্টির সময় সিএও যুব ও ক্রীড়া কার্যালয়ে ০১ জন প্রধান হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তার, ২ জন অডিট এন্ড একাউন্টস অফিসারের,  ২ জন সুপারের, ১৭ জন অডিটরের, ২ জন জুঃ অডিটরের, ৩ জন অফিস সহায়ক সহ মোট ২৭ জন কর্মকর্তা/কর্মচারীর পদ সৃষ্টি করা হয় ।

সিএও যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় কার্যালয়টি ঢাকার সেগুন বাগিচাস্থ হিসাব ভবনের (প্রাক্তন এজি অফিস) ৫ম তলার পূর্ব্ পার্শ্বে অবস্থিত । এ কার্যালয়ে মোট শাখার সংখ্যা ২টি । গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মোট ৫০টি হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তার কার্যালয়ের মধ্যে সিএও যুব ও ক্রীড়া একটি উল্লেখ্যযোগ্য অফিস ।

হিসাব মহানিয়ন্ত্রক

জনাব মোঃ নূরুল ইসলাম
হিসাব মহানিয়ন্ত্রক (সিজিএ)
বিস্তারিত